ডিমলায় মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ রাখার অপরাধে ফার্মেসি মালিককে জরিমানা

0
232

মহিনুল ইসলাম সুজন নীলফামারী: নীলফামারীর ডিমলায় মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ রাখা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ড্রাগ লাইসেন্স দিয়ে ফার্মেসি পরিচালনার অপরাধে কামরুজ্জামান ওরফে কামরুল(৪৫)নামে এক ফার্মেসি মালিককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।এ সময়ে বেশকিছু মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধও সেখান থেকে জব্দ করা হয়।

জানা গেছে,সোমবার(২৭জানুয়ারি)সন্ধ্যার সময় উপজেলা সদরের হাসপাতাল মোড়ের জামান ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে বেশকিছু মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ করেন ভ্রাম্যমান আদালত।এ সময়ে ফার্মেসিটির মালিকের কাছে ড্রাগ লাইসেন্স দেখতে চাইলে মালিক হালনাগাদ লাইসেন্স দেখাতে না পেরে মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স দেখান। পরে ফার্মেসির মালিক কামরুজ্জামানকে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় ভোক্তা অধিকার আইনের ৫১ ধারায় পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এই প্রতিবেদককে বলেন,নিয়মিত অভিযানের ধারাবাহিকতায় ওই ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ ও ড্রাগ লাইসেন্স পাওয়ায় ভোক্তা অধিকার আইনের ৫১ ধারায় মালিককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।এ সময় আশ-পাশের অন্যান্য ফার্মেসি গুলোর মালিকেরা দোকান বন্ধ রাখেন।আমাদের মোবাইল কোর্ট পরিচালনার উদ্যেশ্য হলো মানুষকে সচেতন করা।মানুষ পুরো-পুরি সচেতন হলে আমাদের আর মোবাইল কোর্ট পরিচালনার প্রয়োজন হবেনা।

তবে এলাকাবাসীর অভিযোগ, অভিযানের সময়ে হাসপাতাল মোড়ের সকল ফার্মেসি আকস্মিক বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনা তাদেরকে নতুন করে ভাবিয়ে তুলেছেন।অনেকের দাবি হাসপাতাল মোড় সহ উপজেলার অধিকাংশ ফার্মেসিতে অভিযান চালালেই পাওয়া যাবে মেয়াদোত্তীর্ণ কোনো না কোনো ঔষধ এবং ড্রাগ লাইসেন্স।তাই মালিকেরা ফার্মেসি গুলো ওই সময় বন্ধ করে রেখেছিলেন।এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসনের এই অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে তা অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here