মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয় : ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট

0
28

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::  ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, সন্ত্রাসীদের সঙ্গে মুসলমানদের গুলিয়ে ফেলা ঠিক হবে না। শুক্রবার ফ্রান্সের এলসিআই টেলিভিশনকে এমনটি বলেন সাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্ট ওলাঁদ ।

এ সময় ফ্রান্সের নিস শহরে একটি চার্চে হামলার ঘটনায় তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে ওলাঁদ বলেন, ইসলামপন্থী সন্ত্রাসীরা ধর্মের মধ্যে যুদ্ধ বাঁধাতে চায়।

গত বৃহস্পতিবার ফ্রান্স ও ফ্রান্সের বাইরে ফরাসি স্থাপনা ও ব্যক্তির ওপর বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটে। ফরাসি শহর নিস, আভিগনন ও লিও এবং রিয়াদে ফরাসি কনস্যুলেটের বাইরে এসব হামলার দিকে ইঙ্গিত করে সাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্ট বলেন, এসব সন্ত্রাসীদের সঙ্গে মুসলিমদের গুলিয়ে ফেলবেন না । এটা করলে আমরা এমন ভুল করবো যেটি আমাদের সংঘাতের মধ্যে ফেলে দেবে, যেটা আমরা চাই না।

গত ১৬ অক্টোবর প্যারিসের রাস্তায় শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে হত্যা করেছিল এক তরুণ। কারণ, ওই শিক্ষক ক্লাসে মহানবী (সা.) এর ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন দেখিয়ে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন। যা মুসলিমদের জন্য অত্যন্ত অবমাননাকর। তারই প্রতিক্রিয়ায় তরুণ ছাত্র আবদৌলখ ওই বিতর্ক সৃষ্টিকারী শিক্ষকের ওপর হামলা চালান। আবদৌলখ ঘটনাস্থলেই পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন।

কিন্তু ফ্রান্সের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন মুসলিমদের বিরুদ্ধে আপত্তিকর ও অবমাননাকর বক্তব্য দিয়ে পরিস্থিতিকে আরো উত্তেজনাকর করে তুলেছেন। মুহম্মদ (সা.) এর প্রতি অবমাননায়ও তিনি সমর্থন করেন। বাকস্বাধীনতার নামে তার ওইসব চরমপন্থি বক্তব্যে গোটা মুসলিম বিশ্বে এখন উত্তাল হাওয়া বইছে। এমনকি জাতিসংঘসহ বিভিন্ন অমুসলিম দেশও তার ওইসব আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রনের বক্তব্যে মুসলিম বিশ্বে ক্ষোভের ঝড় উঠেছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ হচ্ছে। এমনকি ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশও। এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বৃহস্পতিবার নিস শহরের একটি গির্জায় হামলা চালায় তিউনিশিয়া থেকে ফ্রান্সে পাড়ি জমানো এক তরুণ।

ও্আর/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here